১০০ কোটির মাইলফলকে ডুয়ো অ্যাপ

0
69
ডুয়ো অ্যাপ

গুগলের ভিডিও চ্যাট অ্যাপ ডুয়ো ১০০ কোটির বেশিবার গুগল প্লে স্টোর থেকে ডাউনলোড হয়েছে। ২০১৬ সালে ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ অ্যালো ও ভিডিও চ্যাটিং অ্যাপ ডুয়ো উন্মোচন করে গুগল। উন্নত রেজল্যুশনে ভিডিও কল করা যায় বলে অ্যাপটি জনপ্রিয়তা পেয়েছে। শুধু ফোন নম্বর থাকলেই অ্যাপটি দিয়ে যে–কাউকে কল করা যায়। আলাদা করে কোনো অ্যাকাউন্টের প্রয়োজন হয় না।

প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট অ্যান্ড্রয়েড পুলিশের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ছয় মাস আগে ৫০ কোটির মাইলফলক ছুঁয়েছিল ডুয়ো। বাকি ছয় মাসের কম সময়ে আরও ৫০ কোটিবার ডাউনলোড হয়েছে অ্যাপটি। এ বছরে আইপ্যাড, অ্যান্ড্রয়েড ট্যাব, ক্রোমবুক ও স্মার্ট ডিসপ্লের সমর্থন–উপযোগী করা হয় অ্যাপটিকে।

সাধারণ, কিন্তু অত্যন্ত কার্যকার ভয়েস কলিং অ্যাপ্লিকেশন গুগল ডুয়ো। অ্যাপলের ফেসটাইমের জবাবে গুগল বাজের নিয়ে আসে গুগল ডুয়ো। অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি প্লে স্টোরের যেকোনো ভয়েস ও ভিডিও কলিং অ্যাপ্লিকেশনের তুলনায় উন্নত সাউন্ড ও ভিডিও কোয়ালিটি পাবেন। নির্বিঘ্নে কথা বলতে এই অ্যাপ্লিকেশন অত্যন্ত কার্যকর। গুগল প্লে স্টোর থেকে বিনা খরচে গুগল ডুয়ো ইনস্টল করা যাবে। আর এটি ব্যবহার করতে কোনো খরচ নেই।

ব্যবসা-বাণিজ্যবিষয়ক মার্কিন সাইট বিজনেস ইনসাইডারের তথ্য অনুযায়ী, অ্যাপটি উল্লেখযোগ্যভাবে অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীদের আকর্ষণ করতে পেরেছে।

সম্প্রতি ডুয়ো অ্যাপটিকে বাড়তি গুরুত্ব দিতে অ্যালো অ্যাপটি বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে গুগল। আগামী বছরের মার্চ মাস থেকে অ্যালো অ্যাপটি বন্ধ হয়ে যাবে। অ্যালো অ্যাপটি বন্ধ করে গুগল অ্যান্ড্রয়েড মেসেজিং বিষয়টিকে আরও উন্নত করার ঘোষণা দিয়েছে।

গত এপ্রিল মাসে অ্যালো অ্যাপে বিনিয়োগ বন্ধ করে অ্যান্ড্রয়েড মেসেজেসকে গুরুত্ব দিতে শুরু করে গুগল। এরপর থেকে অ্যালোর স্মার্ট রিপ্লে, জিআইএফ, ডেস্কটপ সমর্থন অ্যান্ড্রয়েড মেসেজেসে যুক্ত হয়।

গুগল জানিয়েছে, গিভেন মেসেজেস ফিচারটি জনপ্রিয় হতে শুরু করেছে। তাই মেসেজেসকে গুরুত্ব দিতে অ্যালোতে সমর্থন বন্ধ করা হচ্ছে। ২০১৯ সালের মার্চ পর্যন্ত অ্যালো চালু থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here