শেষ ম্যাচেও অসহায় হার সালমাদের

0
85

সিরিজ হার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই। শেষ টি-টোয়েন্টিটা ছিল মর্যাদার লড়াই। কিন্তু তাতেও পেরে ওঠেনি বাংলাদেশের মেয়েরা। এমনকি লড়াইটাই করতে পারেনি তারা। ব্যাটিং ও বোলিং দুই বিভাগের ব্যর্থতায় পাকিস্তানের কাছে চতুর্থ ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হার দেখেছে সালমা খাতুনের দল।

কক্সবাজারে শনিবার টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে সালমারা। রুমানা আহমেদ ও ফাহিমা খাতুন ছাড়া আর কোন ব্যাটারই প্রতিরোধ গড়তে পারেননি। এ দুই ব্যাটসম্যানই ছুঁতে পেরেছেন দুই অঙ্কের কোটা। ৩১ বলে ২টি চারের সাহায্যে ২৪ রান করেন রুমানা। আর ফাহিমার ব্যাট থেকে আসে ১৪ রান। ফলে সর্বসাকুল্যে ৭৭ রানে অলআউট হয়ে যায় দলটি।

৭৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ১৪.৫ ওভারেই ম্যাচ জিতে নেয় পাকিস্তানের মেয়েরা। যদিও দলীয় ১২ রানেই উদ্বোধনী জুটি ভেঙ্গেছিল সালমারা। তবে সে চাপ ধরে রাখতে পারেনি দলটি। দ্বিতীয় উইকেটে নাহিদা আক্তারের সঙ্গে ৩৪ ও তৃতীয় উইকেটে মুনিবা আলির সঙ্গে ২৭ রানের দুটি জুটিতে দলের জয়ের ভিত গড়ে দেন অধিনায়ক জাভেরিয়া খান।

৩৬ রানের দায়িত্বশীল একটি ইনিংস খেলেছেন অধিনায়ক জাভেরিয়া। মুনিবা আলি অপরাজিত ১৮ ও নাহিদা খান ১৭ রান করেন।  বাংলাদেশের পক্ষে একটি করে উইকেট নিয়েছেন সালমা, রুমানা ও খাদিজা তুল কুববা।

এ জয়ে চার ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতল পাকিস্তান। এর আগে মাঠ খেলার অনুপযোগী থাকায় পরিত্যক্ত হয়েছিল প্রথম টি-টোয়েন্টি। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৫৮ রানে এবং তৃতীয় ম্যাচ জেতে ৭ উইকেটের জয় পেয়েছিল সফরকারীরা। আগামী সোমবার একই ভেন্যুতে হবে একমাত্র ওয়ানডে ম্যাচ।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ৭৭ (শামিমা ৪, আয়েশা ২, সানজিদা ৪, নিগার ৯, রুমানা ২৪, লতা ৪, ফাহিমা ১৪, জাহানারা ০, সালমা ৪, নাহিদা ২*, কুবরা ২; নাটালিয়া ৩/২০, আনাম ১/১৩, ডায়ানা ২/১২, নিদা ১/১৮, সানা ২/১০)।

পাকিস্তান: ১৪.৫ ওভারে ৭৮/৩ (আয়েশা ৪, নাহিদা ১৭, জাভেরিয়া ৩৬, মুনিবা ১৮*, আলিয়া ০*; জাহানারা ০/৯, সালমা ১/১৩, রুমানা ১/১৫, কুবরা ১/১৪, নাহিদা ০/১৪, ফাহিমা ০/১৩)।

ফলাফল: পাকিস্তান ৭ উইকেটে জয়ী।

সিরিজ: ৪ ম্যাচের সিরিজে পাকিস্তান ৩-০ ব্যবধানে জয়ী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here