রহস্য রেখে দিলেন সাকিব

0
245

যেকোনো ম্যাচের আগের দিন আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে আসেন অধিনায়কই। বুধবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের সংবাদ সম্মেলন কক্ষে সাকিব আল হাসান ঢুকতেই তার খেলা না খেলা নিয়ে সংশয়ের মেঘ উবে যাওয়ার কথা। হাতের অবস্থা কেমন? উত্তরেও বললেন, ‘হাত আলহামদুলিল্লাহ পুরোপুরি ভালো’। কিন্তু এরপর সাকিব নিজেই সংশয় বাড়িয়ে রেখে দিলেন রহস্য। নিয়মিত অধিনায়ক কি কাল নামছেন নাকি নামছেন না? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে নাকি অপেক্ষা আছে আরও।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজে সাকিবের ফেরা ছিল অনেকটা চমকের মতই।  মাস দেড়েক আগেও তার আঙুলের যা অবস্থা ছিল তাতে এই সিরিজেই যে তাকে পাওয়া যাবে, এমন বিশ্বাসীর সংখ্যা ছিল  হাতেগোনা।

কিন্তু দ্রুতই সেরে উঠায় জিম্বাবুয়ে সিরিজের শেষ টেস্ট চলার সময়েই অনুশীলনে ফেরেন সাকিব। তখন থেকেই আভাস মিলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজেই ফিরছেন তিনি। আঙুলের চোটে ব্যাট করতেই সাকিবের সমস্যা ছিল বেশি। চট্টগ্রাম এসে প্রথমেই হাতে নিয়েছিলেন ব্যাট। প্রথম দিনেই টানা ৪৫ মিনিট নেটে ব্যাট করেছেন। অনুশীলন চালিয়েছেন পরের তিনদিনও। বাদ যায় বিশ্রামের দিনটাও।

একটু কম গতির বলে ব্যাটিং করেছেন অনায়াসে। বল করতেও সমস্যা দেখা যায়নি। তবে ফিল্ডিংয়ে ছিলেন সতর্ক। উঁচুতে উঠা ক্যাচ ধরতে খানিকটা সমস্যায় পড়তে দেখা যায় তাকে।

তবে সব মিলিয়ে চার সেশন অনুশীলন করা টেস্টে নামার জন্য পর্যাপ্ত  কিনা তা নিয়েই দ্বিধা আছে সাকিবের মনে।

বুধবার অনুশীলনের ফাঁকে নির্বাচক হাবিবুল বাশারের সঙ্গে বেশ অনেকক্ষণ একান্তে কথা বলতে দেখা যায় তাকে। পরে সংবাদ সম্মেলনে জানালেন নিজের সংশয়ের কথা, ‘পাঁচদিন খেলাটা আসলে কতটুকু চ্যালেঞ্জের হবে সেটা আমরা সবাই জানি, যদি পাঁচদিন খেলা যায়। এই কারণেই এখনো একটু হলেও সংশয় আছে। আসলে ওই অবস্থাতে (খেলার মতো) আমি এসেছি কিনা।’

দলের সঙ্গে আছেন, অনুশীলন চালিয়েছেন, পরিকল্পনাও আঁটছেন তবু নিজের প্রস্তুতি নিয়ে সাকিবের মনেই আছে খচখচানি, ‘আজকে সহ চারটা সেশন সব মিলিয়ে অনুশীলন করলাম। এর ভেতরে দুইটা সেশন ছিল ঐচ্ছিক। শেষ পর্যন্ত আসলে অপেক্ষা করতে হবে ওইটার (খেলছেন কিনা) জন্য।’

অধিনায়ক শেষ পর্যন্ত না নামলে একাদশ সাজানো নিয়ে বেশ জটিলতায় পড়তে হবে বাংলাদেশকে। এমনিতে সাকিব খেললে মেহেদী হাসান মিরাজ আর তাইজুল ইসলামসহ স্পিন ত্রয়ীই নামার কথা। আর সাকিবের না থাকলে সুযোগ পেতে পারেন অফ স্পিনার নাঈম হাসান। তবে এসব হিসেব নিকেশের বাইরে কে জানে হয়ত প্রতিপক্ষের জন্যই এই ধোঁয়াশা রেখে দিয়েছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here