ভয়ে আছে বিএনপি দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন আ.লীগের এনামুল

0
71
ভয়ে আছে বিএনপি দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন আ.লীগের এনামুল

মামলা, গ্রেপ্তার ও গ্রেপ্তার–আতঙ্কে ঘরে থাকতে পারছেন না রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনে বিএনপির লোকজন। এদিকে এ আসনে বিএনপি প্রার্থীর প্রচারণায় বাধা ও হুমকি–ধমকিতে তাঁদের আর প্রকাশ্য মাঠেও দেখা যাচ্ছে না। অপরদিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ধুমসে চালিয়ে যাচ্ছেন নির্বাচনী প্রচারণা। ঘরে ঘরে গিয়ে চাইছেন ভোট।

বিএনপি নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ১৩ ডিসেম্বর এ আসনে বিএনপির প্রার্থী সাবেক সাংসদ আবু হেনাকে প্রচারণায় বাধা এবং তাঁর গাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করা হয়। এসব ঘটনায় উল্টো বিএনপি, যুবদল ও ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধেই মামলা করে পুলিশ।

মামলার অছিলায় পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি দেওয়াসহ বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেপ্তার করে। এরপর নেতারা আত্মগোপনে চলে যান। ঝিমিয়ে পড়ে তাঁদের প্রচারণা। তবে সূত্রটি আরও জানায়, প্রকাশ্যে প্রচারণা চালাতে না পারলেও কৌশলে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন বিএনপির প্রার্থীর কর্মী–সমর্থকেরা।

পত্রিকায় নাম প্রকাশ হলে পুলিশের হয়রানির শিকার হবেন এমন আশঙ্কা জানিয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপির অন্তত ছয়জন নেতা প্রথম আলোকে বলেন, ক্ষমতাসীন দলের লোকজন ও পুলিশের কারণে মাঠে টিকতে পারছেন না তাঁরা। গ্রেপ্তার ও হামলায় ভয়ভীতি দেখিয়ে তাঁদের কর্মী–সমর্থকদের নৌকার প্রচারণায় যেতে বাধ্য করানো হচ্ছে।

এসব নেতারা আরও অভিযোগ করেন, কেন্দ্রে যাতে কেউ এজেন্ট না হন, সে ভয়ও দেখানো হচ্ছে বিএনপির কর্মী, সমর্থকদের। এ রকমই ভীতিকর এক পরিস্থিতিতে তাঁরা রয়েছেন। তবে সেনাবাহিনী মাঠে অবস্থান নিলে তাঁরা ধানের শীষের প্রচারণায় প্রকাশ্যে নামবেন বলে জানিয়েছেন।

অন্যদিকে বিএনপির নেতা-কর্মীদের প্রকাশ্য প্রচারণা না থাকায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী একতরফাভাবেই মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন। তিনি দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে প্রত্যন্ত এলাকায় ঘুরে ঘুরে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তাঁর পক্ষে কেন্দ্রীয় এবং জেলাপর্যায়ের নেতারা ছাড়াও বিভিন্ন সংগঠন নিয়মিত প্রচারণা চালাচ্ছে।

আওয়ামী লীগের প্রার্থী এনামুল হক বলেন, এলাকার সব শ্রেণির লোকজন তাঁর সঙ্গে রয়েছেন। আওয়ামী লীগের গত ১০ বছরের উন্নয়ন এবং বিগত দিনে চরমপন্থী ও জেএমবি ইস্যুতে বিএনপির প্রার্থী আবু হেনা টিকতে পারছেন না।

বাগমারা থানার ওসি নাছিম আহম্মেদ বলেন, পুলিশ কাউকে অযথা হয়রানি বা গ্রেপ্তার করছে না। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। বিএনপির প্রার্থী বা তাঁর লোকজনকে কেউ হুমকি দিলে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here