নির্বাচনের আগে ২১ আগস্ট মামলার রায়ের দিন ধার্য ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: রিজভী

0
204
নির্বাচনের আগে ২১ আগস্ট মামলার রায়ের দিন ধার্য ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত: রিজভী

জাতীয় নির্বাচনের আগে ২১ আগস্ট মামলার রায়ের দিন ধার্যকে ‘উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’ ও ‘কাশিমবাজার কুঠির ষড়যন্ত্র’ বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, এই মামলার রায়ের তারিখ আসন্ন নির্বাচনের আগে নির্ধারণ করাটাও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।আইনি প্রক্রিয়াকে হাতের মুঠোয় নিয়ে কুটিল চক্রান্তের মাধ্যমে তারেক রহমানকে ভিকটিম করার জন্যই ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের দিন ধার্য করা হয়েছে। সমগ্র ঘটনার আলোকে বলাই যায়, এ সময়ের কোনো এক কাশিমবাজার কুঠিতে চক্রান্তজাল বুনেছে চক্রান্তকারীরা। ২১ আগস্ট বোমা হামলা মামলায় প্রকৃত অপশক্তিকে পর্দার অন্তরালে রেখে সম্পূরক চার্জশিটে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নাম জড়ানো হয়েছে মনের ঝাল মেটাতে। তাকে ভিকটিম করার জন্য।
শুক্রবার নয়াপল্টন কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, ফাঁপা উন্নয়নের জিগির তুলে জনগণের অর্থের লুটপাট, বেপরোয়া গুম-খুন আর রক্তপাতের দমবন্ধ করা পরিস্থিতির সুযোগের সদ্ব্যবহার করতেই ২১ আগস্ট বোমা হামলার রায়ের দিন ধার্য করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, এ সরকারের আমলে বিচারের রায় কী হবে তা জনগণ ভালই জানে। নির্দোষ বেগম খালেদা জিয়াকে কূটকৌশল করে কিভাবে কারাগারে বন্দি রাখা হয়েছে তাও জনগণ জানে। কারণ, ২১ আগস্ট বোমা হামলা রায় ঘোষণার আগেই সরকারেরলোকেরা বলেছেন- এই রায়ের পর বিএনপি আরো বিপদে পড়বে।
রিজভী হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘সেদিন বেশি দূরে নয়, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হবেই। গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হলেই ন্যায়বিচার নিশ্চিত হবে। সরকার যতই ষড়যন্ত্রের বেড়াজাল দিয়ে রাখুন না কেন, একতরফা নির্বাচন আর এ দেশে জনগণ হতে দেবে না।
রিজভী বলেন, অপশক্তিকে পরাস্ত করতে না পারলে তাদের চক্রান্তের ফলশ্রুতিতে ক্ষতিগ্রস্ত হয় দেশ, দেশের মানুষ ও জাতীয়তাবাদী নেতারা। জাতীয়তাবাদী শক্তির প্রধান কাণ্ডারি বেগম খালেদা জিয়া মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দী, কয়েক মাস পরে অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচন নিয়ে অনিশ্চয়তা। অধিকারহারা জনগণ একটি জোরালো আন্দোলনের জন্য অগ্নিগর্ভ হয়ে আছে। এমনিতে সারাদেশে ঝাঁকে ঝাঁকে গায়েবী মামলায় এক অস্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে। তার ওপর দেশজুড়ে বাসাবাড়ীতে চলছে বিএনপি নেতাকর্মীদের খোঁজার ধুম। মধ্যযুগের মতো পাইকারী হারে গ্রেফতারের শিকার করা হচ্ছে নেতাকর্মীদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here