কুমিল্লায় সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদের আশংকায় সপরিবারে আত্মহত্যার হুমকি

0
189
কুমিল্লায় সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদের আশংকায় সপরিবারে আত্মহত্যার হুমকি
কুমিল্লায় সম্পত্তি থেকে উচ্ছেদের আশংকায় সপরিবারে আত্মহত্যার হুমকি। ছবিঃ ইত্তেফাক।

কুমিল্লায় বসতভিটা থেকে উচ্ছেদের আশংকায় কামাল উদ্দিন আহাম্মদ ওরফে রাজা কামাল নামের এক ব্যক্তি তার ফেসবুকে ভিডিও আপলোড করে সপরিবারে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন। ‘হেল্পলেস’ শিরোনামে ৬ মিনিট ৫৭ সেকেন্ডের ওই ভিডিওটি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। এ নিয়ে নগরজুড়ে বিভিন্ন মহলে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

রাজা কামাল কুমিল্লা নগরীর দক্ষিণ চর্থা এলাকার মৃত ফরিদ উদ্দিন আহাম্মদের ছেলে। নগরীর আশ্রাফপুর এলাকায় ৯ শতক ভূমির ওপর ঘর নির্মাণ করে তিনি পারিবারিকভাবে বসবাস করছেন। তবে এ বিষয়ে পুলিশ বলছে, রাজা কামালকে উচ্ছেদের নোটিশ দেওয়া হয়নি, আত্মহত্যার হুমকি না দিয়ে তিনি আদালতে যেতে পারেন।

ভিডিও বার্তায় রাজা কামাল প্রধানমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপিসহ অন্যদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, ‘আমি যে সম্পত্তিতে আছি এটা আমার বাপ-দাদার সম্পত্তি। সিএস-আরএস খতিয়ান ও খাজনা রশিদ আমার নামে থাকা সত্বেও বিএস খতিয়ানে কিছুটা ঝামেলা রয়েছে। এ ব্যাপারে আদালতে মামলা চলছে। তা সত্বেও কিছুদিন পূর্বে অজ্ঞাত এক ব্যক্তি আর্মির সার্জেন্ট পরিচয়ে আমাকে বাড়ি ছাড়ার হুমকি দিয়ে গালমন্দ করে। এক পর্যায়ে সে বলে সম্পত্তি থেকে আমাকে উঠে যেতে হবে, ঢাকা ক্যান্টনমেন্টের একজন ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ জায়গা ক্রয় করেছেন। আমার (রাজা কামাল) নামে তিনটি মামলা আছে, আমাকে এ বাড়ি থেকে যে কোনো মুহূর্তে চলে যেতে হবে।

পরে আমি ক্যান্টনমেন্টে গিয়েছি, সেখান থেকে আমাকে বলেছে এটা ভুয়া তথ্য। র‌্যাব অফিসে গিয়েছি, সেখান থেকে আমাকে থানায় জিডি করতে বলা হয়েছে, করেছি। কিছুদিন পূর্বে সদর দক্ষিণ মডেল থানার অধীন কুমিল্লা ইপিজেড ফাঁড়ির পুলিশ আমার বাসায় এসে বলে আমার নামে মামলা আছে, বাসা ছেড়ে দিতে হবে।’

ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ইপিজেড পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক গত বুধবার সকালে আমাকে কাগজপত্র নিয়ে সেখানে যেতে বলেন। আমি সকল কাগজপত্রসহ আমার উকিল সাহেবকে সঙ্গে নিয়ে যাই। কিন্তু তিনি কাগজপত্র না দেখে একদিনের মধ্যে বাড়ি ছেড়ে দিতে বলেন। আমি ভয়ে কিছু না বলে সেখান থেকে কোনোরকমে বের হয়ে চলে আসি।

তিনি সহযোগিতা চেয়ে ওই ফেসবুক ভিডিওতে আরো বলেন, ‘পরবর্তীতে অনেকের দ্বারস্থ হয়েছি, কিন্তু কারো কাছ থেকেই সহযোগিতা পাইনি। তাই আমি আপনাদেরকে জানাতে চাই, যদি আমাকে বাড়ি ছাড়তেই হয়, আমি আজকে দেখেন এই এনড্রিনের শিশিটা (বিষের বোতল দেখিয়ে) নিয়ে এসেছি। যদি যেতেই হয়- আমি আমার গর্ভবতী স্ত্রী ও আমার দুই সন্তান নিয়ে আত্মহত্যা করব। তবুও এ বাড়ি ছেড়ে আমি যাবো না। আপামর জনতা, যারা আমার ভিডিও দেখছেন, যদি আমাকে আইনি সহায়তা না দেন তাহলে আমি আমার পরিবার নিয়ে আত্মহত্যা করবো….।’

এ বিষয়ে শনিবার দুপুরে রাজা কামাল সাংবাদিকদের জানান ‘জায়গা নিয়ে আদালতে মামলা চলছে। কিন্তু এর সুরাহার আগেই আমাকে উচ্ছেদের জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছে। আজ শনিবার দুপুরে ইপিজেড ফাঁড়ির ইনচার্জ আমার হাতে একটি নোটিশ দিয়েছেন। আমি এখন পুরোপুরি অসহায়। আমি আমার পৈত্রিক সম্পত্তি ফেরত চাই। পরিবার নিয়ে শান্তিতে বসবাস করতে চাই।’

সদর দক্ষিণ মডেল থানার অধীন কুমিল্লা ইপিজেড পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোহাম্মদ আজিজুল হক বলেন, সম্পত্তির মালিকানা দাবি করে রেঁনেসা এগ্রো কমপ্লেক্স লি. এর পক্ষে সদর দক্ষিণ উপজেলার বাগমারা গ্রামের মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে কামাল উদ্দিন আহাম্মদের বিরুদ্ধে কুমিল্লা অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেছেন। এতে আদালত থানার ওসিকে ওই সম্পত্তির রিসিভার নিয়োগ করেন। ওই সম্পত্তি নিয়ে শান্তিভঙ্গের আশংকায় আদালতের আদেশে উভয়পক্ষকে সতর্কীকরণ নোটিশ প্রদান করা হয়েছে। তাকে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের নোটিশ দেওয়া হয়নি, বিষয়টি তিনি ভুল বুঝেছেন। এ ব্যাপারে তিনি আদালতে যেতে পারেন। আত্মহত্যা করা তো কোন সমাধান হতে পারে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here