এমন টেস্টও হারল পাকিস্তান!

0
48

এরকম টেস্ট হারা বোধহয় কেবল পাকিস্তানের পক্ষেই সম্ভব। কেন নিজেদের গায়ে ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ তকমা সেঁটে গেছে তার মঞ্চায়নই যেন ছিল আবুধাবি টেস্ট। লক্ষ্যটা ছিল নাগালের মধ্যেই, সে লক্ষ্যে এক পর্যায়ে ঠিক পথেই ছিল পাকিস্তানে। কিন্তু রোমাঞ্চকর সমাপ্তিতে উৎসব করেছে নিউজিল্যান্ড।

সোমবার আবুধাবিতে নিউজিল্যান্ডের ১৭৬ রানের লক্ষ্যে নেমে ৪ রানে হেরেছে সরফরাজ আহমেদের দল। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটি জিতে নিউজিল্যান্ড এগিয়ে গেছে ১-০ তে। পাকিস্তানকে ধসিয়ে দিতে ক্যারিয়ার সেরা বোলিং করে ৫৯ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন আজাজ প্যাটেল।

১৭৬ রানের লক্ষ্যে আগের দিন পাকিস্তানের দুই ওপেনার ৩৭ রান তুলে দিন শেষ করেছিলেন। চতুর্থ দিনে শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান।  আজাজ আর ইশ সোধীর ছোবলে ৪৮ রানেই ৩ উইকেট হারায়।

তবে সেখান থেকে আসাদ শফিকের সঙ্গে ৮২ রানের জুটি গড়েন আজহার আলি। ১৩০ রানে গিয়ে ম্যাথু ওয়েগনারের বলে আসাদ ফেরার পরই ফের উল্টো যাত্রা  পাকিস্তানের। আজহারকে  খানিকক্ষণ সঙ্গ দিয়ে রান আউটে ফেরেন বাবর আজম। এরপর আর কেউ দাঁড়াতেও পারেননি। শেষ পাঁচ ব্যাটসম্যানের কেউই যেতে পারেননি দুই অঙ্কে।

এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে সতীর্থদের যাওয়া আসা দেখেছেন আজহার। শেষ দিকে তিনিই ছিলেন দলের মূল ভরসা। এগারো নম্বর ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আব্বাসকে নিয়ে এগুচ্ছিলেন রোমাঞ্চকর শেষের দিকে। শেষ উইকেটে দরকার ছিল আরও ১২ রান। আজহার স্ট্রাইক ধরে ধরে খেলে এগিয়ে যাচ্ছিলেন একটু একটু করে। তবে একদম তীরে গিয়ে ভেড়াতে পারেননি তরী। আজাজের বলে এলবডব্লিও হয়ে ফেরেন তিনি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংস: ১৫৩

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস: ২২৭

নিউজিল্যান্ড দ্বিতীয় ইনিংস: ২৪৯

পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংস (লক্ষ ১৭৬): ( ইমাম ২৭, হাফিজ ১০, আজহার ৬৫, হারিস ৪, আসাদ ৪৫, বাবর ১৩, সরফরাজ ৩, বিলাল ০, ইয়াসির ০, হাসান ০, আব্বাস ০* ; বোল্ট ০/২৯, ডিগ্রুম ০/১৫, আজাজ ৫/৫৯, সোধী ২/৩৭, ওয়গনার ২/২৭)

ফল: নিউজিল্যান্ড ৪ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: আজাজ প্যাটেল

সিরিজ: নিউজিল্যান্ড ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here