উদ্বোধনী জুটিতে রেকর্ড গড়লেন রনি-মজিদ

0
242

বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে সর্বোচ্চ উদ্বোধনী জুটির রেকর্ড গড়েছেন আব্দুল মজিদ ও রনি তালুকদার। এবারের জাতীয় ক্রিকেট লিগে চট্টগ্রাম বিভাগের বিপক্ষে ৩৫০ রানের জুটি গড়েছেন ঢাকার এই দুই ওপেনার। ম্যারাথন জুটির পথে রনি হাঁকিয়েছেন ডাবল সেঞ্চুরি।

বাংলাদেশের প্রথম শ্রেনীতে আগের রেকর্ডটি ছিল নাজমুল হোসেন ও মিজানুর রহমানের। ২০১৭ মৌসুমে রাজশাহী বিভাগের হয়ে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে ৩৪১ রানের জুটি গড়েছিলেন তারা। উদ্বোধনী জুটির সেরা পাঁচ রেকর্ডের তিনটাতেই আছে রনি আর মজিদের নাম।

২০১৫ সালে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষেই ৩১৪ রানের জুটি গড়েছিলেন দুজন। ওই মৌসুমেই চট্টগ্রামের বিপক্ষে দুজনের ৩০৪ রানের আরেকটি জুটি ছিল।

এত বড় জুটির পর ম্যাচের অবস্থা যাওয়ার তাই হয়েছে। ঢাকা বিভাগের এভারেস্টসম রানের নিচে চাপা পড়ে মরার দশা চট্টগ্রামের। তৃতীয় দিন শেষে ১ উইকেট হারিয়েই ৩৮৫ রান করে ফেলেছে ঢাকা। যার মধ্যে রনি তালুকদারের একারই ২২৮ রান। মজিদ আউট হয়েছে ১৩২ রান করে।

২২৮ রানের ইনিংসে বেশ আগ্রাসী ছিলেন রনি। খেলছেন ২৫২ বল। ১৮টি চারের পাশাপাশি মেরেছেন ৭টি ছক্কা। কিছুটা রয়েসয়ে খেলা মজিদ ১৩২ করতে লাগান ২৮৮ বল। ১৪ চারের সঙ্গে তিনি মেরেছেন দুই ছক্কা।

একদিন বাকি থাকতে চট্টগ্রামকে ৪৮২ রানের লক্ষ্য দেয় ঢাকা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ৩ উইকেট ১৩৫ রান দিন শেষ করেছে চট্টগ্রাম।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ঢাকা ১ম ইনিংস: ২৩৮

চট্টগ্রাম ১ম ইনিংস: ১৪২

ঢাকা ২য় ইনিংস: (দ্বিতীয় দিন শেষে ১৭৬/০) ৯২ ওভারে ৩৮৫/১ ডিক্লে. (মজিদ ১৩২, রনি ২২৮*, সাইফ ১৩*; নাঈম ০/৯৯, হাসান ০/৭১, সাইফ ০/৪৬, ইরফান ০/৮০, জুবায়ের ১/৬৮, মুমিনুল ০/১১)

চট্টগ্রাম ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৪৮২) ৩৯ ওভারে ১৩৫/৩ (সাদিকুর ২৪, শুক্কুর ২, মুমিনুল ৬২, তাসামুল ৩৩*, সাঈদ ৬*; শাহাদাত ১/২৭, নাজমুল ১/২৬, শুভাগত ১/২৪, শরিফ ০/১৯, মোশাররফ ০/২৫, তাইবুর ০/৬)

বাংলাদেশের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সেরা পাঁচ উদ্বোধনী জুটি 

৩৫০ – আব্দুল মজিদ, রনি তালুকদার (ঢাকা বিভাগ, অক্টোবর ২০১৮)

৩৪১ – নাজমুল হোসেন, মিজানুর রহমান (রাজশাহী বিভাগ, ডিসেম্বর ২০১৭)

৩১৪ – আব্দুল মজিদ, রনি তালুকদার (ঢাকা বিভাগ, ফেব্রুয়ারী ২০১৫)

৩১২ – তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস (বাংলাদেশ, এপ্রিল ২০১৫)

৩০৪- রনি তালুকদার, আব্দুল মজিদ (ঢাকা বিভাগ, ২০১৭)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here